আজ : ০৬:৩০, ডিসেম্বর ১৫ , ২০১৯, ১ পৌষ, ১৪২৬
শিরোনাম :

যুক্তরাষ্ট্রে ৭ জনকে ‘ফোবানা এওয়ার্ড’ প্রদান করা হবে সেপ্টেম্বরে

যুক্তরাষ্ট্র প্রতিনিধি

আপডেট:১১:১০, অগাস্ট ১১ , ২০১৬
photo


সেপ্টেম্বরের ২ থেকে ৪ তারিখ পর্যন্ত ‘লেবার ডে উইকেন্ডে’ যুক্তরাষ্ট্রের রাজধানী ওয়াশিংটন ডিসিতে ‘শেরাটন পেন্টাগণ সিটি হোটেলে’ অনুষ্ঠিতব্য ফোবানা’র (ফেডারেশন অব বাংলাদেশী অর্গানাইজেশন্স ইন নর্থ আমেরিকা) ৩০তম বাংলাদেশ সম্মেলনে মুক্তিযুদ্ধ, সাংবাদিকতা, পরিবেশ সুরক্ষা, সমাজসেবা, বিজ্ঞান-গবেষণাসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ অবদানের জন্যে ৭ জনকে ‘ফোবানা এওয়ার্ড’ প্রদান করা হবে।

সম্মেলনের হোস্ট কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ আলমগীর সোমবার এ তথ্য জানিয়েছেন।

মুক্তিযুদ্ধে অবিস্মরণীয় ভূমিকার পাশাপাশি বাঙালি সংস্কৃতিকে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে উপস্থাপনের জন্যে শিল্পী শাহাবুদ্দিন আহমেদ (মুক্তিযোদ্ধা ক্যাটাগরি), সাংবাদিকতায় ভয়েস অব আমেরিকার বাংলা বিভাগের প্রধান রোকেয়া হায়দার, শিক্ষায় ‘মডার্ন ই-লার্নিং’-এর উদ্ভাবক ড. বদরুল হুদা খান, বিজ্ঞানে ড. আশরাফ আহমেদ, সমাজসেবায় ওয়াহেদ হোসেনী, পরিবেশ সুরক্ষায় চ্যানেল আইয়ের মুকিত মজুমদার এবং মেধাগতভাবে বিশেষ কৃতিত্ব প্রদর্শনের জন্যে আনশা জান্না ইসলাম পাবেন এসব এওয়ার্ড।
উত্তর আমেরিকায় বসবাসরত বাংলাদেশীদের মহামিলনমেলা হিসেবে পরিচিত ‘ফোবানা’র এ সম্মেলনের হোস্ট করছে ‘বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অব গ্রেটার ওয়াশিংটন ডিসি।’ উল্লেখ্য, এই সিটি থেকেই ১৯৮৭ সালে ফোবানার যাত্রা শুরু হয় এবং প্রতিষ্ঠাকালিন অনেকেই এবারের সম্মেলনে তাদের স্মৃতিচারণ করবেন। সম্মেলনে অতিথির তালিকায় রয়েছেন বাংলাদেশের গণপূর্ত ও গৃহায়ণ মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশারফ হোসেন, জাতীয় সংসদে পররাষ্ট্র সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান ডা. দীপু মনি, ইউএস স্টেট ডিপার্টমেন্ট ও কংগ্রেসের গুরুত্বপূর্ণ কয়েকজন সদস্য এবং বাংলাদেশ ও প্রবাসের খ্যাতনামা সাংবাদিক, লেখক, কবি, সাহিত্যিক ও সাংস্কৃতিক অঙ্গনের তারকারা। দেশ ও প্রবাসের সমসাময়িক প্রসঙ্গ নিয়ে থাকবে বেশ কটি সেমিনার-সিম্পোজিয়াম। নতুন প্রজন্মকে বাংলা ভাষা ও সংস্কৃতির সাথে পরিচিত করতেও রয়েছে বিশেষ একটি উদ্যোগ। হোস্ট কমিটির কর্মকর্তারা একযোগে কাজ করছেন ৩০তম এ সম্মেলনকে সেরা একটি সমাবেশে পরিণত করতে।
Attachments area


সাম্প্রতিক খবর

বুদ্ধিজীবি হত্যার অন্যতম নায়ক চৌধুরী মইনুদ্দিনকে দেশে ফিরিয়ে নিয়ে রায় কার্যকরের দাবী

photo লন্ডনঃ১৯৭১ সালের ১৪ই ডিসেম্বর বিজয়ের ঊষালগ্নে জাতিকে মেধাশূন্য করতেই সুপরিকল্পিত ভাবে জাতির শ্রেষ্ট সন্তানদের বেছে বেছে ঘর থেকে ধরে নিয়ে হত্যাকরা হয়,বুদ্ধিজীবি হত্যার মূল পরিকল্পনা করেছিল পাকিস্তানীদের দোষর আলবদর রাজাকার ও আলসামস বাহিনীর সদস্যরা। আর এর অন্যতম নায়ক ছিল তৎকালীন আলবদর কমান্ডার লন্ডনে পলাতক ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত চৌধুরী মইনুদ্দিন। একাত্তরের ঘাতক দালাল

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment