আজ : ০৫:১৪, অক্টোবর ১৫ , ২০১৯, ২৯ আশ্বিন, ১৪২৬
শিরোনাম :

যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবন্দরে তৃতীয় বার আটক হলেন শাহরুখ খান

ইন্টারন্যাশনাল নিউজ ডেস্ক ::

আপডেট:১১:১২, অগাস্ট ১২ , ২০১৬
photo


যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবন্দরে তৃতীয় বার আটক হলেন শাহরুখ খান ।

এর আগে ২০০৯-এর আগস্ট মাসে শাহরুখ খানকে আটকানো হয় নিউ জার্সির নেওয়ার্ক লিবার্টি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে।
এরপর ২০১২ সালের এপ্রিল মাসে নীতা অম্বানির সঙ্গে একটি প্রাইভেট জেট-এ নিউ ইয়র্কে পৌঁছনোর পর সেখানকার ইমিগ্রেশন দফতরে প্রায় তিন ঘণ্টা আটকে রাখা হয় বলিউড বাদশাকে।

এবার ১২ আগষ্ট ২০১৬ ফের মার্কিন বিমানবন্দরে আটক হলেন তিনি। এই বার লস অ্যাঞ্জেলস বিমানবন্দরে তাকে আটক করলেন মার্কিন অভিবাসন দফতরের অফিসাররা। পরে অবশ্য মার্কিনদের পক্ষ থেকে তরফ থেকে এই হেনস্থার জন্য দুঃখপ্রকাশ করা হয়েছে। টুইটে দুঃখপ্রকাশ করেছেন ভারতে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূতও।

তবে বারবার একই রকম ঘটনায় নিজের বিরক্তি চেপে রাখতে পারেননি শাহরুখ। টুইট করে তিনি লিখেছেন, ‘আমি নিরাপত্তা ব্যবস্থার প্রয়োজন বুঝি এবং সম্মান করি। তবে যুক্তরাষ্টের বিমানবন্দরে এই ভাবে প্রত্যেক বার আটকানোটা সত্যিই খারাপ লাগছে।’

যুক্তরাষ্ট্র অভিবাসন ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষের তথ্য অনুযায়ী নো ফ্লাই তালিকায় থাকা অন্য এক শাহরুখ খানের সঙ্গে গুলিয়ে ফেলাতেই এই ঘটনাটি ঘটেছে। আর সেই বিভ্রান্তির ফলেই বলিউড বাদশাহকে এই ভোগান্তিতে পড়তে হলো।

শাহরুখের এই ভোগান্তিতে টুইটারে দুঃখপ্রকাশ করেছেন আমেরিকার সহকারী বিদেশ সচিব নিশা দেশাই বিসওয়াল। লিখেছেন, ‘বিমানবন্দরে ভোগান্তির জন্য দুঃখিত। এমনকী মার্কিন কূটনীতিকদেরও এই রকম ঝামেলা পোহাতে হয়।’

টুইটে দুঃখপ্রকাশ করেছেন ভারতে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত রিটার্ড ভার্মাও। লিখেছেন, ‘সমস্যার জন্য দুঃখিত। এটা যাতে আর ভবিষ্যতে না ঘটে সেটা আমরা দেখছি। আপনার অভিনয় লক্ষ লক্ষ মানুষকে অনুপ্রাণিত করে এমনকি সেটা আমেরিকাতেও।’

মার্কিন রাষ্ট্রদূতকে তার টুইটের জন্য ধন্যবাদ জানিয়েছেন শাহরুখ লিখেছেন ‘কোনও ব্যাপার না স্যার। এই নিরাপত্তাব্যবস্থাকে আমি সম্মান করি এবং আমি এর ঊর্ধ্বেও নই। তবে আমার কথা ভাবার জন্য ধন্যবাদ।’

ছবি: সংগৃহীত
Attachments area


সাম্প্রতিক খবর

হিজড়াদের চাঁদাবাজি মধ্যরাতে বিভিন্ন স্পটে বসে দেহব্যবসা

photo ওসমানীনগর (সিলেট)প্রতিনিধিঃসিলেটের ওসমানীনগরে হিজড়াদের ওপেন দেহ ব্যবসা ও বখশিসের নামে বেপরোয়া চাঁদাবাজির কারণে অতিষ্ট হয়ে পেরেছেন এলাকাবাসী। প্রতি দিন মধ্য রাতে উপজেলার গোয়ালাবাজার, তাজপুরবাজার সহ বিভিন্ন বাজারে বসে দেহব্যবসায়ী হিজড়াদের ভাসমান হাট। হিেিসবে উটতি বয়সী ছেলে স্কুল কলেজ পড়–য়া ছাত্র যুবক সহ বিভিন্ন বয়সী পুরুষদের খদ্দের হিসেবে ব্যবহার করছে হিজড়ারা।

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment