আজ : ০১:৩১, অক্টোবর ২৭ , ২০২০, ১১ কার্তিক, ১৪২৭
শিরোনাম :

জৈন্তাপুরে কৃষক সংগঠনের উদ্যোগে বেড়ী বাধেঁ বৃক্ষ রোপণ

বিশ্ববাংলানিউজ২৪

আপডেট:০৯:৪৩, সেপ্টেম্বর ২৩ , ২০২০
photo


জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধিঃ-
সিলেট জৈন্তাপুর উপজেলায় নিজস্ব পতিত ভূমি বোরো ধানের আওতায় নিয়ে আসতে সোটারী সেনগ্রাম‘র কৃষক সংগঠনের উদ্যোগে ৭১টি পরিবারে প্রায় ৫শত একর জমি রক্ষার্তে ও বোরা ফসলের আওতায় নিয়ে আসতে প্রথম বারের মত নিজ উদ্যোগে প্রায় ৪০লক্ষ টাকা ব্যয়ে ১০ হাজার ফুট বেড়ী নির্মাণ এবং বাধঁ রক্ষায় প্রায় ১৫ হাজার বিভিন্ন প্রজাতির বৃক্ষ রোপণ করা হয়েছে।
সরেজমিন ঘুরে জানা যায়, জৈন্তাপুর উপজেলার হিঙ্গারীকোন (শিংকুড়িকোনা) সোটারী সেনগ্রামের কৃষকদের নিজস্ব ভূমি পতিত হিসাবে হাওরে পড়ে রয়েছে, বিশেষ করে বাঁধের অভাবে পতিত ভূমিগুলো কৃষি চাষাবাদের আওতায় আসেনি। এবার নিজ উদ্যোগে উপজেলা কৃষি অফিসের পরামর্শে প্রথম বারের মত প্রায় ৭১টি পরিবারের সদস্যরা প্রায় ৪০লক্ষ টাকা ব্যয় করে ১০হাজার ফুট বেড়ী বাঁধ নির্মাণ করে প্রায় ৫শত একর ভূমি বোরো ধান চাষাবাদের উপযোগী করে তুলে। বাঁধটি বন্যার পানি এবং ফসল রক্ষার জন্য সোটারী সেনগ্রাম কৃষক সংগঠন বাঁধটির উপর ১৫হাজার বৃক্ষের চারা রোপনের উদ্যোগ নেয়।
২৩ সেপ্টেম্বর বুধবার সকাল ১১টায় সংগঠনের সভাপতি আহমদ আলীর সভাপতিত্বে জৈন্তাপুর উপজেলা উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা সোয়েব আহমদ, উপজেলা উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা নোমান আহমদ, জৈন্তাপুর অনলাইন প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মোঃ রেজওয়ান করিম সাব্বির‘র উপস্থিতিতে বৃক্ষের চারা রোপন উদ্বোধন করেন।
এসময় উপস্থিত আরোও উপস্থিত ছিলেন সোটারী সেনগ্রাম কৃষক সংগঠনের সদস্য কলিম উল্লাহ, আহমদ আলী, হানিফ আলী, নুরুল ইসলাম, আব্দুর রহমান, হাজী নজির হোসেন, কুদ্রত উল্লাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।
সংগঠনের সভাপতি বলেন, আমরা নিজ উদ্যোগে বাঁধটি নির্মাণ করার ফলে স্বাধীনতা পরবর্তীতে প্রথমবারের মত আমাদের নিজস্ব পতিত ভূমিগুলো চাষাবাঁদের আওতায় নিয়ে আসায় আমাদের ৭১টি পরিবারের ৮শতাধীক সদস্যরা উৎপাদিত ধান দিয়ে পুরো বৎসর সংসারের চাহিদা শেষে আরোও বিক্রয় করতে পারি। আমরা আশাবাদি জৈন্তাপুর উপজেলা কৃষি অফিস যদি কৃষকদের মধ্যে বোরো ধান চাঁষের পরামর্শ ও দিক নির্দেশনা প্রদান করে তাহলে আমরা চাহিদার চাইতে আরোও বেশি ফলন পাব। উপজেলায় সর্ববৃহত বোরো ধানের একটি বড় প্রকল্প হবে হিঙ্গারী কোন (শিংকুড়িকোনা) বোরো ধান প্রকল্প।
তিনি আরোও বলেন, সম্প্রতি তাদের নিজস্ব ভূমিতে বাঁধ নির্মাণ করে বোরো ধান চাষের আওতায় নিয়ে আসায় উপজেলার ফাল্লি বিলের ইজারাদার আব্দুল খালিক, জয়নাল মিয়া, আব্দুল্লাহ ও তোতা মিয়া গংরা শত্রুতা শুরু করেছে। তারা বাঁধটি ভাঙ্গার পায়তারা করছে। ইতোমধ্যে ইজারাদার গংরা ফাল্লি বিল ইজারা নিয়ে ইউনিয়ন ভূমি অফিসে মিথ্যা ভিত্তিহীন অভিযোগ দিয়ে তাদের বাঁধটি তিনটি অংশে কর্তন করে। এই বাঁধ কর্তনের কারনে চাষাবাধেঁর ব্যাপক ক্ষতির সম্মুখিন হচ্ছে। তারা সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সরেজমিন পরিদর্শন পূর্বক আইনি সহযোগিতা করার দাবী জানান।

Posted in সিলেট


সাম্প্রতিক খবর

বৃহত্তর জৈন্তা পাথর শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন‘র নির্বাচন সম্পন্ন

photo মোঃ হানিফ, জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধিঃবৃহত্তর জৈন্তা পাথর শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন রেজি নং-চট্ট-১৯০৯ এর ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। ব্যাপক উৎসাহ উদ্দিীপনার মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠিত নির্বাচনে সভাপতি পদে মোঃ আব্দুর রহমান এবং সাধারণ সম্পাদক পদে মোঃ মস্তফা কামাল নির্বাচিত হয়েছেন। বৃহত্তর সিলেট‘র সবচেয়ে বড় এবং পুরাতন সংগঠন বৃহত্তর জৈন্তা পাথর শ্রমিক ট্রেড ইউনিয়ন, এই

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment