আজ : ০৩:৫৭, জুলাই ৪ , ২০২০, ২০ আষাঢ়, ১৪২৭
শিরোনাম :

ক্ষমা করুন প্রিয় রানা ভাইঃআহমেদ শামীম

বিশ্ববাংলানিউজ২৪

আপডেট:১২:০৩, জুন ২০ , ২০২০
photo


ক্ষমা করুন প্রিয় রানা ভাই।আজ যে আপনার ৩০তম মৃত্যুবার্ষিকী তাও আমার স্মরণে ছিল না।বন্ধু ছড়াকার জয়নাল আবেদীন জুয়েলের একটি লেখা থেকে জানতে পারলাম। রানা ভাই, আজকের প্রজন্ম আপনার মতো ক্ষণজন্মা মানুষকে চিনেনা, জানেনা।আমি তাদের দোষ দেখিনা। আমরা তো জানাইনি ! আপনি যে ( আব্দুল মালেক রানা)সিলেট ছড়া পরিষদের প্রাণপুরুষ ছিলেন কিংবা বঙ্গবন্ধুর নাম যখন মুখে আনা ছিল এক সময় দুষ্কর তখন আপনি চরম দু:সাহসিকতার পরিচয় দিয়ে শুধু জাতির পিতাকে স্মরণ করতেন না, আপনি পকেটের পয়সা খরচ করে এবং বঙ্গবন্ধু ভক্তদের সহায়তায় জেলরোডস্থ জামে মসজিদে বঙ্গবন্ধুর জন্ম- মৃত্যুবার্ষিকীতে মিলাদ পড়াতেন- সে কথা ক’জন জানে? জেলরোডস্থ ছত্তারিয়া রেস্টুরেন্ট ছিল আপনার রুটিরুজির একমাত্র প্রতিষ্ঠান। সেখানে আপনি কাজের ফাঁকে ছড়া লিখতেন। আমাদের মতো তখনকার তরুণ ও উদীয়মান ছডাকারদের ডেকে নিয়ে কাছে বসাতেন। আড্ডার আসর জমাতেন। ফ্রি চা- পিঁয়াজু খাওয়াতেন।ছড়া পরিষদের ২য় অস্থায়ী কার্যালয় ছিল আপনার ছত্তারিয়া রেস্টুরেন্ট। আর এই রেস্টুরেন্টেই বঙ্গবন্ধু প্রেমিক লেখকদের নিয়ে আমরা গঠন করি ‘বঙ্গবন্ধু সাহিত্য পরিষদ’। এতে সবচেয়ে বেশি উৎসাহিত করেন আমাদের অনেকের লেখকগুরু বর্তমানে আমেরিকা প্রবাসী শিশু সাহিত্যিক ও সংগঠক শ্রদ্ধাভাজন সুফিয়ান আহমদ চৌধুরী। আব্দুল মালেক রানাকে (প্রয়াত) সভাপতি, সাংবাদিক মতিয়ার রাহমান চৌধুরীকে ( বর্তমানে ইংল্যান্ড প্রবাসী) সহ সভাপতি, আমাকে (আহমেদ শামীম) সাধারণ সম্পাদক এবং ছড়াকার অজিত রায় ভজনকে সাংগঠনিক সম্পাদক করে গঠিত হয় ‘বঙ্গবন্ধু সাহিত্য পরিষদ’-এর প্রথম কার্যনির্বাহী কমিটি। এ কমিটির মাধ্যমে আমরা বঙ্গবন্ধুর জন্ম- মৃত্যুবার্ষিকী পালন ছাড়াও সকল জাতীয় দিবসে নানা কর্মসূচীর আয়োজন করতাম। এসব প্রোগ্রামে সব সময়ই পেয়েছি সদ্য প্রয়াত জননেতা বদর উদ্দিন আহমদ কামরানসহ বঙ্গবন্ধু প্রেমিক সিলেটের সকল সাহিত্যিক- সাংবাদিক এবং দলমত নির্বিশেষে অসংখ্য মানুষের সরব উপস্থিতি এবং অকুণ্ঠ সমর্থন।
আমি অকাল প্রয়াত মরহুম আব্দুল মালেক রানা, সদ্য প্রয়াত বদর উদ্দিন কামরান এবং ছড়া পরিষদের আরেকজন নিবেদিতপ্রাণ কর্মী প্রয়াত ছড়াকার সাঈদ আহমেদ কয়েস-এর স্মৃতির প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানাচ্ছি এবং তাঁদের বিদেহী আত্মার মাগফেরাতের জন্য মহান রাব্বুল আল আমিনের দরবারে কায়মনোবাক্যে মোনাজাত করছি, আমিন।

(ছবিত উপরের সারিতে বাম থেকে ২য় আব্দুল মালেক রানা এবং ডান থেকে ২য় সাঈদ আহমেদ কয়েস)।

Posted in মতামত


সাম্প্রতিক খবর

জৈন্তাপুরে একই দিনে ভাইরাসে আক্রান্ত ১৬

photo জৈন্তাপুর (সিলেট) প্রতিনিধিঃসিলেট জৈন্তাপুর উপজেলায় কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাসে আক্রন্তের সংখ্যা দিন দিন বেড়েই চলছে। বর্তমানে জৈন্তাপুরে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৮৫জন। তার মধ্যে মৃত্যু বরণ করেছে ১জন, সুস্থ্য হয়েছেন ৪৮জন, নতুন নমুনা সংগ্রহ ৫ জন, ফলাফলের অপেক্ষায় রয়েছে ২২জন। জৈন্তাপুরে কোভিড-১৯ করোনা ভাইরাসের রিপোর্ট কয়েকদিন থেকে না আসায় থমকে ছিল ফলাফল, বর্তমানে ১৮ দিন পরে

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment